হাঁপানি বা অ্যাজমা ঘরোয়া পদ্ধতিতে কমানোর উপায় Ways to reduce asthma at home

বছরের যেকোনো সময়ে যে কারোর হাঁপানি রোগ হতে পারে। শীতকালে হাঁপানি রোগ হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে। হাঁপানি রোগ নানান কারণে হতে পারে যেমন রাসায়নিক সার থেকে, এলার্জি থেকে, দূষিত বায়ু থেকে, অনেক সময় বংশগত কারনেও হাঁপানি রোগ হয়ে থাকে। হাঁপানি রোগ পুরোপুরি নিরাময় সম্ভব না হলেও কিছু ঘরোয়া পদ্ধতিতে হাঁপানি রোগ নিয়ন্ত্রণ করা যায়।

ঘরোয়া পদ্ধতিতে হাঁপানি রোগ কমানোর উপায়  Ways to reduce asthma at home

১. হাঁপানি রোগ নিয়ন্ত্রণের জন্য সকালে ঘুম থেকে উঠে এক চামচ মধু রাতে শোবার সময় একজন মধু খেয়ে ঘুমালে হাঁপানি রোগ নিয়ন্ত্রণ করা যায়। এক চামচ মধুর সাথে কিছুটা দারচিনির গুঁড়ো মেশালে তা বেশি ভালো হয়।

২. ঠান্ডা জলের মধ্যে কিছুটা আদা থেঁতো করে জলে মিশিয়ে জল গরম করে কিছুটা ঠান্ডা করে জল খেয়েনিন, এতে হাঁপানি রোগ নিয়ন্ত্রণ হয়।

৩. এক গ্লাস দুধের মধ্যে চার থেকে পাঁচ রোয়া রসুন কুচি করে দুধে মিশিয়ে কিছুটা ঠান্ডা করে খেয়ে নিন এতে হাঁপানি ও ফুসফুসের অনেক সমস্যা দূর হয়।

৪. এক গ্লাস জলের মধ্যে পাঁচ থেকে ছয় চামচ লেবুর রস ও এক চামচ চিনি দিয়ে ভালো করে মিশ্রন করে প্রতিদিন খেলে হাঁপানি রোগ নিয়ন্ত্রণে খুব উপকার হবে।

৫. দিনে দুই থেকে তিনটি কাঁচা পেঁয়াজ খেলে শ্বাসকষ্ট দূর হয়।

৬. হাঁপানি রোগের জন্য ব্যথার ওষুধ পেশারের ওষুধ ঘুমের ওষুধ না খাওয়াই ভালো।

৭. হাঁপানি রোগে আক্রান্ত হওয়া রোগীদের ধূমপান থেকে সবসময় বিরত থাকতে হবে।

৮. আদা চা ও গ্রিন টি খেলে হাঁপানি রোগ নিয়ন্ত্রণে আনা যায়।